প্রমিথিউসের অভিশাপ

ফিরবার পথ রুদ্ধ করেছো
রুদ্ধ করেছো সিংহাসন চীরকালিন,
মাতৃগর্ভে ছিলে যখন তুমি
ঈশ্বরের দূত অথবা স্বয়ং ঈশ্বর হয়ে এসেছিলাম, বোঝনি!
আজন্ম ছায়াতুল্য ফলজ পুরোহিত
তোমার অভিশপ্ত ছিল,
প্রনয়ের রাশিফল, বোঝনি!

সৃষ্টির অনাদি সে কাল থেকে
অলিখিত সনদে পাতায়
তুমিতো বাগদত্তা ছিলে আমার,
অশুভ দ্বীপ ছিলনা নিয়তি তোমার
প্রেমের ফসলে মোড়া সম্রাজ্য ছেড়ে
অযাচিত প্রনয়ে ছিলনা
সুখের বারতা কোনো, বোঝনি।

দেবতার অনিন্দ সুন্দর উপহার
পায়ে ঠেলে দিলে,
অনাগত পুর্ণিমার আলো মুছে দিলে তুমি,
কোমল হাতে নেভালে আলোময় দিন।
অশুভ টাইটান ছিলনা শুধীজন,
আমিই ঈশ্বর ছিলাম তোমার, বোঝনি!

সভ্যতার বিকাশে চুরি হয়েছিল ঈশ্বরের আগুন, বিনিময়ে প্রতিদিন জিউসের শকুনে ঠুকরে খেয়েছে নতুন হৃদয়,
নিষিদ্ধ আগুন চুরির
তৃপ্তি-যাতনা কতটুকু, বোঝনি!

প্রেমর নদী হৃদয় জলের গভীরতার হয়না পরিমাপ,
অথচ ভুল জল-নদীতে ভেসেছো, নিয়েছো দেবতার অভিশাপ।।

কবি:হাসান আবাবিল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Pin It on Pinterest

সংস্করণ