তোমার আমি ক‌বিতা

তোমার ক‌বিতাগু‌লো খুব ক‌রে ভাবায় আমা‌কে ,
কখ‌নো চো‌খের কো‌ণের বা‌ক্সে দারুন ক‌রে –
লু‌কিয়ে রা‌খে কিছু ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র জলকণার অ‌ভিমান ।
কিন্তু যতই সাবধা‌নে রাখা থাকুক না কেন –
পুঞ্জীভূত বাস্পগু‌লো ঠিক সব ঘোলা‌টে ক‌রে তো‌লে !

মা‌ঝে মা‌ঝে তোমার ক‌বিতাগু‌লো খুব হাসায়ও আমায়
কখ‌নো প্রাণ‌খোলা অট্টহা‌সিতে উদ্ভা‌সিত হই ,
কখ‌নো বা ছোট্ট একটু মুচকী হা‌সি‌তে হই আলোকময়ী
কখ‌নো তীব্র কটা‌ক্ষে বেঁ‌কে যায় চোখের চাহনী
সা‌থে ঠোঁ‌টে ঝো‌লে তিক্ত ব্যঙ্গ আর অবজ্ঞা !

হঠাৎ হঠাৎ , তোমার ক‌বিতা প‌ড়ে ঝড় ও‌ঠে বু‌কে !
কি যে তীব্র উথাল পাথাল করা সেই ঝড় !
সা‌থে সুনামীর মত আছ‌ড়ে পড়া অশ্রুরা‌শি !
কখ‌নো দু’‌চোখে ভরা লজ্জ্বায় আনত পাতার কাঁপন
তির তির ক‌রে কেঁ‌পে ওঠা ওষ্টাধ‌রে অ‌পেক্ষার আহ্বান !

তোমার লেখা ক‌বিতাগু‌লো ভীষণ জ্বালায় আমা‌কে ,
তোমার লেখা ক‌বিতাগু‌লো শুধু দোলায় আমা‌কে ।
আমা‌কে লেখা তোমার টুক‌রো টুক‌রো কথাগু‌লো
কখন যেন চু‌পি চু‌পি ক‌বিতা সা‌জি‌য়ে নি‌য়ে ,
খুব তোমার ক‌রে তো‌লে এই আমার আমি‌কে !
কখন যেন অজা‌ন্তেই তোমার ক‌বিতা হ‌য়ে যাই আমি !!

কবি:রুমানা আখতার

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Pin It on Pinterest

সংস্করণ