নজরে এবার ওয়ানডে সিরিজ

টেস্ট সিরিজে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে আক্ষরিক অর্থে কুপোকাত করতে পেরেছে বাংলাদেশ দল। এবার ওয়ানডে সিরিজেও সেটা করে দেখানোর পালা।

কাগজ-কলমের হিসেব বলছে, ওয়ানডেতে টেস্টের চেয়ে কাজটা সহজ হওয়ার কথা। কারণ, এই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরে বাংলাদেশ সর্বশেষ টেস্ট সিরিজে হোয়াইট ওয়াশ হলেও সেখানেই ওয়ানডে সিরিজ হারিয়ে এসেছিল দলটিকে।

ওয়ানডেতে বাংলাদেশ এমনিতেই ঘরের মাটিতে গত বছর তিনেক ধরে অনেক বড় শক্তি। তার সাথে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে রেকর্ড বিবেচনায় নিলে সম্ভাবনাটা আরো বাড়ে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সামগ্রিক রেকর্ড খুব আহামরি কিছু নয়। এই দলটির বিপক্ষে বাংলাদেশ এ পর্যন্ত ৩১টি ম্যাচ খেলে ৯টি জয় পেয়েছে। কিন্তু হিসাবটা যদি আমরা ২০০৯ সালের জুলাই মাস থেকে করি, তাহলে দেখতে পাবো এই দলটির বিপক্ষে ১৮ ম্যাচে এসেছে ওই ৯ জয়। মানে অর্ধেক ম্যাচ জিতেছে বাংলাদেশ। এর মধ্যে সিরিজও জয় হয়েছে কয়েকটা।

যদিও বাংলাদেশের টেস্ট অধিনায়ক সাকিব আল হাসান মনে করছেন না যে, খুব সহজ হবে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ওয়ানডে জেতাটা। তিনি স্বীকার করছেন যে, ওয়ানডে তারা দল হিসেবে ভালোই খেলছেন। কিন্তু ওয়েস্টইন্ডিজকে যথেষ্ট সমীহ করেই কথা বলার পক্ষে সাকিব, ‘আমার কাছে মনে হয় ওয়ানডে অনেক কঠিন হবে। আমাদের ওভাবেই প্রিপারেশন নিতে হবে। যদিও আমরা ওয়ানডে খুবই ভালো খেলছি কিন্তু আমরা বেশ ভালো একটা প্রতিপক্ষের সাথে তিনটা ওয়ানডে খেলবো। তো আমাদের বেস্ট ক্রিকেটটাই খেলতে হবে যদি ভালো করতে হয়।’

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সীমিত ওভার ক্রিকেট খেলায় আজকের দিনে বড় চ্যালেঞ্জ হলো সিমরন হেটমেয়ার। এই মারকুটে ব্যাটসম্যান বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের প্রতিকূলতার মধ্যেও রান পেয়েছেন। ফলে তার প্রিয় ফরম্যাট ওয়ানডেতে তিনি যে বড় হুমকি হয়ে উঠবেন, তাতে সাকিবেরও সন্দেহ নেই। তবে তিনি বলছেন, হেটমেয়ারের বিপক্ষে ওভাবেই পরিকল্পনা করবেন তারা, ‘ও ফর্মে আছে। এটা ওদের জন্য ভালো হবে। যেহেতু ডিফারেন্ট একটা ফরম্যাট, অন্যরকম থাকবে সবকিছুই। স্বাভাবিকভাবেই কোচ-ক্যাপ্টেন ভিন্নভাবে প্লান করবে।’

ওয়ানডে সিরিজে শুধু ফরম্যাট বদলাবে না। বাংলাদেশ দল অনেকটাই বদলে যাবে। এই সিরিজে হিসেবে আরো শক্তিশালী বাংলাদেশকে সামলাতে হবে ক্যারিবিয়দের। এই সিরিজ দিয়ে খেলায় ফেরার কথা তামিম ইকবালের। পরপর দুটো ইনজুরিতে ভোগার পর নেটে ব্যাটিং শুরু করেছেন তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে অনুশীলন ম্যাচেই মাঠে নামার কথা এই বাঁহাতি ওপেনারের।

তামিমের পাশাপাশি ওই অনুশীলন ম্যাচ দিয়ে খেলায় ফেরার কথা মাশরাফি বিন মুর্তজার। ওয়ানডে অধিনায়ক মাশরাফি এখন টেস্ট বা টি-টোয়েন্টি খেলেন না। তাই অনেকদিন খেলার বাইরে ছিলেন। এর মাঝে তিনি নির্বাচনও করবেন বলে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তবে এই ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে সিরিজ শেষ হওয়ার আগে প্রচারণায় অংশ নিচ্ছেন না মাশরাফি। এই সিরিজটাই হতে পারে দেশের মাটিতে মাশরাফির শেষ সিরিজ।

ফলে বাংলাদেশের অনেককিছু প্রমাণ করার থাকবে এখানেও।

বাংলাদেশ-ওয়েস্ট ইন্ডিজ ওয়ানডে সিরিজ

তারিখ ম্যাচ ভেন্যু

৯ ডিসেম্বর ১ম ওয়ানডে মিরপুর

১১ ডিসেম্বর ২য় ওয়ানডে মিরপুর

১৪ ডিসেম্বর ৩য় ওয়ানডে সিলেট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Pin It on Pinterest

সংস্করণ